البحث

عبارات مقترحة:

الأعلى

كلمة (الأعلى) اسمُ تفضيل من العُلُوِّ، وهو الارتفاع، وهو اسمٌ من...

الشكور

كلمة (شكور) في اللغة صيغة مبالغة من الشُّكر، وهو الثناء، ويأتي...

الظاهر

هو اسمُ فاعل من (الظهور)، وهو اسمٌ ذاتي من أسماء الربِّ تبارك...

আবূ হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি পরিশোধে অক্ষম কোন ঋণগ্রহীতাকে (তার সচ্ছলতা আসা অবধি) অবকাশ দেবে বা তাকে ক্ষমা করে দেবে, আল্লাহ তাকে কিয়ামতের দিনে নিজ আরশের ছায়াতলে স্থান দেবেন, যেদিন তার ছায়া ব্যতীত অন্য কোন ছায়া থাকবে না।”

شرح الحديث :

আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি অভাবগ্রস্তকে অবকাশ দিলো” অর্থাৎ ঋণগ্রস্ত ব্যক্তিকে ঋণ পরিশোধে সময়—বিলম্বে আদায়ের অবকাশ দিলো। তার বাণী, “অথবা তার নিকট থেকে পাওনা মাফ করে দিলো” অর্থাৎ ঋণ মাফ করে দিলো। আবূ নু‘আইমের বর্ণনায় এসেছে, অথবা ঋণের অংশ তাকে দান করল। তাহলে আল্লাহ কিয়ামতের দিন তাঁর আরশের ছায়ায় তাকে ছায়া দিবেন। অর্থাৎ, বাস্তবেই তাঁকে আরশের ছায়ায় ছায়া দিবেন অথবা তাকে জান্নাতে প্রবেশ করাবেন।ফলে কিয়ামতের দিনের প্রচণ্ড গরম থেকে আল্লাহ তাকে রক্ষা করবেন। এ প্রতিদান সে সেদিন পাবেন যে দিন আল্লাহর ছায়া ছাড়া আর কোনো ছায়া থাকবে না। এ ধরণের প্রতিদান পাওয়ার কারণ হলো, যেহেতু সে ঋণগ্রস্ত ব্যক্তিকে নিজের ওপর অগ্রাধিকার দিয়েছেন এবং তাকে প্রশান্তি দিয়েছেন, আল্লাহও তাকে অনুরূপ প্রতিদান দেবেন—যেমন কর্ম তেমন ফল।


ترجمة هذا الحديث متوفرة باللغات التالية